Home Archive by category শিল্প-সাহিত্য

শিল্প-সাহিত্য

শিল্প-সাহিত্য
১. তর্কটা কী নিয়ে? এই লেখাটি বিশ্বের অধিকাংশ দেশে গণতন্ত্রের পিছু-হটার উদ্বেগজনক পরিণতি নিয়ে। এই প্রতিপাদ্যটি কিছু তাত্ত্বিক মীমাংসা, কিছু সাম্প্রতিক বইয়ের আলোচনা, কিছু কেস-স্টাডি, কিছু পরিসংখ্যানগত তথ্য-উপাত্ত ও কিছু অনুমান দিয়ে নানাভাবে বলার চেষ্টা হয়েছে (বলা দরকার এ লেখাটির একটি আদি রূপ এর আগে ‘সমাজ অর্থনীতি ও রাষ্ট্র’ পত্রিকার সাম্প্রতিক সংখ্যায়
শিল্প-সাহিত্য
ভারতীয় নাট্যশাস্ত্র অনুযায়ী নায়িকার অনেক প্রকারভেদ। তবে নায়িকা বলতে একটি কাহিনির প্রধান চরিত্রকেই বোঝায়। আমার জীবনের প্রথম নায়িকা হচ্ছেন আমার মা। কী উজ্জ্বল সোনার বরণ গায়ের রং, ঘনকৃষ্ণ মেঘের মতো চুলের রাশি, চাঁপার মতো হাতের আঙুল, মিষ্টি মধুর কণ্ঠস্বর, আর হাসি তো নয়, নয়ন মনোহর এক প্রাণ জুড়ানো হাসি। আমার সেই অষ্টাদশী নায়িকা মায়ের কোলে […]
শিল্প-সাহিত্য
উৎসগজল শব্দটা এসেছে আরবি থেকে। গাযালের মানে হতে পারে মিষ্টি কথা, প্রাণবন্ত মরুভূমির হরিণ। এ শব্দের একটা জনপ্রিয় অর্থ হচ্ছে ‘আহত হরিণের আর্তনাদ’। ঊষর দিগন্তবিস্তৃত মরুর মাঝে শিকারির তাড়া খাওয়া হরিণ যখন তীরবিদ্ধ হয়ে আর ছুটতে পারে না, তখন তার বুক চিরে যে আর্তনাদ বের হয়ে আসে তা-ই গজল। সমস্ত গজলের প্রায় পুরোটাজুড়ে থাকা প্রেমিকের […]
শিল্প-সাহিত্য
ব্রিটিশ যুগেও বুড়িগঙ্গা নদীর গুরুত্ব হ্রাস পায়নি। তখন থেকেই এই নদীর দুই তীরভূমি ব্যবসা-বাণিজ্যের কেন্দ্রস্থল হিসেবে প্রসিদ্ধি লাভ করে। যাত্রীদের ওঠানামা ও মালপত্রের পরিবহন সুগম করার জন্য ১৭৬৫ সালে প্রায় চার মাইল দীর্ঘ একটি বাঁধ নির্মিত হয়েছিল। পরে অবশ্য তার অস্তিত্ব অবলুপ্ত হয়। ১৮৫৭ সালে তদানীন্তন ঢাকা বিভাগীয় কমিশনার বাকল্যান্ড সাহেবের আগ্রহে ফরাশগঞ্জ থেকে বাবুবাজার
শিল্প-সাহিত্য
আইনস্টাইনের মেয়ের বিয়ে। সবাই চার্চে যাচ্ছিল। পথিমধ্যে আইনস্টাইন তাঁর মেয়েকে বললেন, ‘তুমি চার্চের দিকে যাও, আমি ল্যাবে আমার কলমটা রেখে আসছি।’ মেয়ে অনেক বারণ করা সত্ত্বেও তিনি গেলেন। ৩০ মিনিটের কথা বলে তিনি যখন এলেন না, সবাই মিলে তখন তাঁর মেয়ের বিয়ে দিয়ে দিলেন। ৭ দিন পর তাঁর মেয়ে যখন বাসায় এসে মাকে জিজ্ঞেস করল, […]
শিল্প-সাহিত্য
স্বকৃত নোমান সংস্কৃতির পরিধি বিশাল ও ব্যাপক। এক কথায়, এক বাক্যে এর ব্যাখ্যা দেওয়া প্রায় অসম্ভব। তবে সাধারণভাবে বলা যায়, মানুষের জীবনচর্চা ও চর্যার বৈচিত্র্যময় সমন্বিত রূপই হচ্ছে সংস্কৃতি। মানুষের জীবনযাপনের ধরণ, ঐতিহ্য, আচার-আচরণ, বিশ্বাস-অবিশ্বাস, চিন্তা-চেতনা, নীতি-নৈতিকতা―এগুলো সংস্কৃতির প্রধান উপকরণ। একটি জাতির জাতিগত বৈশিষ্ট্য হচ্ছে সংস্কৃতি। কে ইংরেজ, কে ফরাসি,